ঢাকা বৃহঃস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

থাইল্যান্ডকে হারিয়ে বিশ্বকাপে বাংলাদেশ নারী দল

ক্রীড়া ডেস্ক | প্রকাশিত: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৯:২৩; আপডেট: ৮ ডিসেম্বর ২০২২ ১৮:০৫

জয় জয়কার চলছে বাংলাদেশে নারী ক্রীড়াঙ্গনে। নারী ফুটবল দল জয় করে আসলো দক্ষিন এশিয়ার সর্বোচ্চ শিরোপা। এবার সেই ধারায় নারী জাতীয় ক্রীকেট দলও তাদের সাফল্যের পাখা আরো বিস্তৃত করলো। জায়গা করে নিলো আইসিসি নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মূল পর্বে।

 

আইসিসি নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মূল পর্বে খেলা নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ নারী দল। বাছাইপর্বের সেমিফাইনালে গতরাতে  থাইল্যান্ডকে ১১ রানে হারিয়ে ফাইনালে উঠে বিশ্বকাপে খেলার টিকিট পায় নিগার সুলতানার দল। যোগ্য দল হিসেবেই আগামী বছর দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠেয় বিশ^কাপে খেলবে নিগার-সালমারা।


এর আগে ২০১৪ সালে স্বাগতিক হবার সুবাদে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সরাসরি খেলেছিল বাংলাদেশ। এরপর ২০১৫ সালের বাছাই পর্বে রানার্স-আপ এবং ২০১৮ ও ২০১৯ সালে দু’বার চ্যাম্পিয়ন হয়ে বিশ্বকাপে খেলেছিলো বাংলাদেশ।


বাছাই পর্বের ফাইনালে উঠলেই বিশ্বকাপে খেলা-এমন সমীকরন নিয়ে দ্বিতীয় সেমিফাইনালে থাইল্যান্ডের মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ নারী দল।  


আবু ধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে থাইল্যান্ডের বিপক্ষে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করতে নামে বাংলাদেশ। দলকে ভালো শুরু এনে দেন বাংলাদেশের দুই ওপেনার ফারজানা হক ও মুরশিদা খাতুন। পাওয়ার প্লেতেরান তোলার গতি মন্থর থাকলেও কোন উইকেট হারায়নি বাংলাদেশ। 


সপ্তম ওভারের পঞ্চম বলে দলীয় ৩৪ রানে প্রথম উইকেট হারায় বাংলাদেশ। ১৭ বলে ১১ রান করে  আউট হন  ফারজানা। 


১২তম ওভারে দলীয় ৫২ রানে বিদায় নেন আরেক ওপেনার মুরশিদা। ২টি চারে ৩৫ বলে ২৬ রান করেন তিনি। দ্রুত রান তুলতে ব্যর্থ হয়েছেন মিডল-অর্ডারের দুই ব্যাটার অধিনায়ক নিগার সুলতানা ও সোবহানা মোস্তারি। নিগার ২৪ বলে ১৭ ও মোস্তারি ১০ বলে ৬ রান করে আউট হলে  ১৭ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর দাঁড়ায়  ৪ উইকেটে ৮১ রান । 


তবে শেষ ৩ ওভারে ঝড়ো গতিতে ৩২ রান তুলেছেন রুমানা আহমেদ ও রিতু মনি। রুমানা ২৪ বলে ২টি চার ও ১টি ছক্কায় অপরাজিত ২৮ রান করেন। ১০ বলে ৩টি চারে ১৭ রান করে ইনিংসের শেষ বলে আউট হন রিতু। শেষ ৩ ওভারে দ্রুত রান উঠায় নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১১৩ রানের সংগ্রহ পায় বাংলাদেশ।

জয়ের  জন্য ১১৪ রানের  টার্গেট টার্গেট দিয়ে স্পিন আক্রমনে দারুণ লড়াই করেছে বাংলাদেশের বোলাররা। ২০ ওভারের মধ্যে ১৯ ওভারই বল করেন স্পিনাররা। সালমা খাতুন-সানজিদা আকতার-নাহিদাদের আটঁসাঁট বোলিংয়ে প্রথম ৮ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১৬ রান তুলতে সক্ষম হয় থাইল্যান্ড।

এরপর  একাই লড়াই করেন নাথকান চানথাম। ১৯তম ওভার পর্যন্ত লড়াই করে ৫১ বলে ৬৪ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। তারপরও দলের হার এড়াতে পারেননি চানথাম।

বাংলাদেশের স্পিনারদের সামলাতে না পেরে  শেষ পর্যন্ত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১০২ রান করে ম্যাচ হারে থাইল্যান্ড।

বাংলাদেশের তিন স্পিনার সালমা ৩টি, সানজিদা ২টি ও নাহিদা ১টি উইকেট নেন। ম্যাচে সর্বোচ্চ রান করা থাইল্যান্ডের চানথাম ম্যাচ সেরা হন।

দিনের অন্য সেমিতে আয়ারল্যান্ড ৪ রানে হারিয়েছে জিম্বাবুয়েকে। ফলে আগামীকাল বাছাই পর্বের ফাইনালে আইরিশদের বিপক্ষে খেলতে নামবে বাংলাদেশ।

 




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top