ঢাকা বুধবার, ৬ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯

ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে রাজধানীর বর্ণমালা স্কুলে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত: ২৮ মে ২০২২ ১৪:১২; আপডেট: ২ জুন ২০২২ ১২:২৩

ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে রাজধানীর দনিয়ায় অবস্থিত বর্ণমালা স্কুল এন্ড কলেজে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও এলাকাবাসী।


শনিবার দুপুর ১২ টা থেকে ১টা পর্যন্ত প্রতিষ্ঠানটির সামনে প্রায় সহস্রাধিক ব্যক্তিবর্গ এ মানববন্ধনে অংশ গ্রহণ করেন।

এ সময় ‘বর্ণমালাকে রক্ষায় আমরা বদ্ধ পরিকর’ বর্ণমালাকে নিয়ে ষড়যন্ত্র মানি না- মানব না ইত্যাদি স্লোগান সংবলিত ব্যানার ফেস্টুন শিক্ষক ,অভিভাবক ও এলাকাবাসীর হাতে শোভা পায়। পরবর্তীতে মানব বন্ধন শেষে এক বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।


এ সময় বক্তব্য রাখেন বর্ণমালা স্কুল এন্ড কলেজের বিদ্যুৎসাহী সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আবদুল কুদ্দুস, অভিভাবক প্রতিনিধি ফয়সাল বাবু, বর্ণমালা অভিভাবক ফোরামের সভাপতি শিশির আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক জামাল মিয়া, সদস্য খান মোঃ মহিউদ্দিন, প্রতিষ্ঠানের অভিভাবক আব্দুল কাইয়ুম খন্দকার, অভিভাবক ও আওয়ামী নেতা আল আমিন, মামুন মিয়া, নয়াপারা এলাকার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোনায়ের হোসেন সুমন, মোঃ নাজিম, মোহাম্মদ আলাউদ্দিন, নূরপুর জামে মসজিদের সদস্য সেরা উদ্দিন রিপন, অভিভাবক ও ৬০ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, স্থানীয় এলাকার সু-নাগরিক প্রমুখ।

 


এ সময় বক্তরা বলেন, প্রাচীনতম বর্ণমালা স্কুল এন্ড কলেজটি আব্দুস সালাম বাবুর বলিষ্ঠ নেতৃতে সুন্দর ও সুচারুভাবে পরিচালিত হচ্ছে। কতিপয় কুচক্রী মহল এই প্রতিষ্ঠানটিকে ধ্বংসের পায়তারা করছে। ঐক্যবদ্ধভাবে সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করা হবে বলে ঘোষণা দেন বক্তারা।

 

ইশা, জান্নাত,খাদিজা আফরিন তারা সবাই বর্ণমালা কলেজের একাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

তারা বলেন, আমাদের এই প্রতিষ্ঠানটিতে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ রয়েছে। আমাদের এই প্রতিষ্ঠানটিকে নিয়ে ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচার হচ্ছে। আমরা এসবের তীব্র প্রতিবাদ জানাই।

 


এ প্রসঙ্গে বর্ণমালা স্কুল এন্ড কলেজের চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম বাবু বলেন, ঢাকা ৫ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব কাজী মনিরুল ইসলাম মনুর নির্দেশনায় ঐতিহ্যবাহী বর্ণমালা স্কুল এন্ড কলেজ টি আজ সকলের কাছে সমাদৃত। 

 

দিনরাত পরিশ্রম করে আমি ও আমরা (শিক্ষক, অভিভাবক, ম্যানেজিং কমিটি) এই প্রতিষ্ঠানটিকে একটা অবস্থানে নিয়ে এসেছি। নিয়ম শৃংখলা, লেখাপড়া ও খেলাধুলায় ইতোমধ্যে প্রতিষ্ঠানটি যাত্রাবাড়ী থানায় অন্যতম প্রতিষ্ঠানে পরিনত হয়েছে। সুন্দর ও সূচারুভাবে পরিচালিত হচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।

 

 

কিন্তু গত কয়েকমাস যাবৎ কতিপয় কুচক্রীমহল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটিকে ধ্বংসের পায়তারা করছে। এলাকাবাসীকে সঙ্গে নিয়ে বর্ণমালা স্কুল এন্ড কলেজের সকল ষড়যন্ত্র রুখে দেয়া হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। প্রসঙ্গত, বর্ণমালার স্কুল শাখা ১৯৭৯ সালে এবং কলেজটি ১৯৯৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।

 

 




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top