ঢাকা শনিবার, ৮ অক্টোবর ২০২২, ২২ আশ্বিন ১৪২৯

ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেনকে প্রতারণার মামলায় গ্রেপ্তার

নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৮:৪৯; আপডেট: ৮ অক্টোবর ২০২২ ০১:০৯

 

গাড়ি বিক্রির নামে প্রতারণা, ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার। একই গাড়ির বিপরীতে তিনি একাধিক ব্যক্তির কাছ থেকে টাকা নিতেন। কম দামে গাড়ি কিনে দেওয়া ও রেন্ট-এ কার ব্যবসার আড়ালে প্রতারণার অভিযোগে এক ইউপি চেয়ারম্যানকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

বুধবার কুমিল্লার মেঘনা উপজেলা থেকে জাকির হোসেন (৪৩) নামে ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়; তিনি উপজেলার মানিকাচর ইউপির চেয়ারম্যান।

শুক্রবার ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বলেন, ৭ সেপ্টেম্বর রাজধানীর মুগদা থানায় একটি প্রতারণার মামলা হলে গোয়েন্দা বিভাগ ছায়াতদন্ত শুরু করে।

“জাকির চেয়ারম্যান বন্দর থেকে কম দামে গাড়ি কিনে দেওয়ার কথা বলে লোকজনের কাছ থেকে টাকা নিয়েছেন বলে তদন্তে ওঠে আসে। পরে সেই গাড়ি রেন্ট-এ কারের মাধ্যমে মাসিক ভাড়ায় পরিচালনা করার জন্য তিনি চুক্তি করতেন।”

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, নকল কাগজপত্র দিয়ে জাকির একই গাড়ির বিপরীতে একাধিক ব্যক্তির সঙ্গে চুক্তি করতেন। এছাড়া একই রেজিস্ট্রেশন নম্বরের গাড়ি একাধিক ব্যক্তির কাছে জাল দলিলের মাধ্যমে বিক্রি করতেন।

হারুন অর রশীদ বলেন, “অধিকাংশ ক্ষেত্রে শুধু ইঞ্জিন ও চেসিস নম্বর দিয়ে গাড়ি বিক্রির চুক্তিপত্র স্বাক্ষর করা হত। পরে সেটা নিজেই মাসিক ভাড়ায় পরিচালনা করতেন জাকির। কিছুদিন ভাড়া পরিশোধ করার পর ভাড়া দেওয়া বন্ধ করে দিতেন এবং গাড়ি কেনার অর্থ আত্মসাৎ করতেন।”

কম দামে পুরনো গাড়ির মালিকানা হস্তান্তরের লোভ দেখিয়েও বিভিন্ন ব্যক্তির কাছ থেকে জাকির বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন বলে অভিযোগ পেয়েছে পুলিশ। আবার ক্রেতাকে না জানিয়ে তিনি গাড়ির বিপরীতে ব্যাংক ঋণ নিতেন বলেও তথ্য মিলেছে।

অতিরিক্ত কমিশনার হারুন বলেন, “দেশের বিভিন্ন জেলার বিভিন্ন পেশার প্রায় ৩০০ জনের সঙ্গে এরকম প্রতারণা করে জাকির প্রায় হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছেন।

“প্রতারণার টাকা দিয়ে তিনি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনও করেছেন; তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় প্রতারণার মামলা রয়েছে।

 




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top