ঢাকা সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮

সুপার লিগ না বিদ্রোহী লিগ : তোলপার ফুটবল বিশ্ব

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশিত: ১৯ এপ্রিল ২০২১ ১৩:৪৪; আপডেট: ১৯ এপ্রিল ২০২১ ১৩:৫১

মেসি, রোন্ডাদো কি নিষিদ্ধ হবেন সুপার লিগ খেলে

 

 

ক্রিকেটে বেশ কিছু বিদ্রোহী লিগ বা আই.সি.সি অনুমোদনহীন অনেক টুর্নামেন্ট আয়োজন ছিল চোখে পড়ার মতো, যেমন ইন্ডিয়াতে হয়েছিল ‘আইসিএল’ তা ছিল সম্পূর্ণরূপে আইসিসি এবং ইন্ডিয়ান ক্রিকেট বোর্ড ব্যতিত আয়োজন হয়েছিল। অবশ্য তা বেশীদিন স্থায়ীত্ব হয়নি। এর জন্য অনেক খেলোয়ারকেও বিভিন্ন দেশ সাময়িক ভাবে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে।

 

তেমনি ইউরোপের শীর্ষ ১২টি ক্লাবকে নিয়ে আয়োজনের চেষ্টা করা হচ্ছে, “ইউরোপিয়ান সুপার লিগ” যা আদতে ‘বিদ্রোহী লিগ’ নামে ইতিমধ্যে পরিচিতি পাচ্ছে। ইউরোপিয়ান এই সুপার লিগকে ইতিমধ্যে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফা ও উয়েফা অবৈধ বলে ঘোষনা দিয়েছে।

 

 

১৮ এপ্রিল, রবিবারই ইউরোপের শীর্ষ ১২টি ক্লাব ইতিমধ্যে ঘোষনা দিয়েছে যে, তারা নতুন লিগ খুব শিগ্রই মাঠে নামাতে প্রস্তুতি গ্রহন করেছে। আর এই সুপার লিগের প্রথম চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্বপ্রাপ্ত হলেন রিয়াল মাদ্রিদের সভাপতি ‘ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ। 

 

এই ইউরোপিয়ান সুপার লিগে অংশ গ্রহনকারী ক্লাবের নামও ইতিমধ্যে প্রকাশ করা হয়েছে।            অংশ গ্রহনকারী ক্লাবগুলো-

 

ইংলিশ লিগের- আর্সেনাল, চেলসি, ম্যানচেস্টার সিটি, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, টটেনহাম, লিভারপুল।

ইটালিয়ান লিগের- এসি মিলান,  ইন্টার মিলান, জুভেন্টাস

স্প্যানিশ লিগের- অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ,  বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদ।

 

বিবৃতিতে তারা জানিয়েছে, ইউরোপের শীর্ষ ১২টি ক্লাব সপ্তাহের মাঝ দিকে নিজেদের ঘরোয়া লিগের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে একটি প্রতিযোগিতা শুরুর বিষয়ে একমত হয়েছে। যার নাম সুপার লিগ, আর পুরো টুর্নামেন্টই দেখভাল করবে এর প্রতিষ্ঠাকালীন ক্লাবগুলো।

 
 

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, পরবর্তীতে আরও তিনটি যোগ দেবে তাতে। উদ্বোনী আসর বাস্তবায়নযোগ্য পরিস্থিতি তৈরি হলেই মাঠে গড়াবে ‘ইউরোপিয়ান সুপার লিগ’।

 

অবশ্য এমন বিদ্রোহী লিগ মাঠে গড়ানো নিয়ে ফিফা ও উয়েফা এরই মধ্যে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়ে রেখেছে। তারা বলেছে, অংশ নেওয়া ক্লাবগুলোকে সব ধরনের প্রতিযোগিতায় নিষিদ্ধ করা হবে। এমনকি আন্তর্জাতিক ম্যাচেও নিষেধাজ্ঞার মাঝে পড়বেন সংশ্লিষ্ট ক্লাবের ফুটবলাররা!  

 

 

এমন পরিস্থিতিতেও সুপার লিগের আয়োজকরা বলছেন, তারা এ নিয়ে ফিফা ও উয়েফার সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করতেই আগ্রহী। যাতে সার্বিকভাবে ফুটবলের জন্য সেরা ফলাফলটা পাওয়া যায়। কিন্তু শীর্ষ ক্লাবগুলো এমনটা দাবি করলেও বলা হচ্ছে, সুপার লিগ মাঠে গড়ালে হুমকিতে পড়তে পারে চ্যাম্পিয়নস লিগ!

 

ফরম্যাট কেমন হবে?

বিবৃতি অনুযায়ী ১৫টি প্রতিষ্ঠাকালীন ক্লাবসহ মোট ২০টি ক্লাব দুটি গ্রুপে ভাগ হয়ে খেলবে হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে ভিত্তিতে। এর মধ্যে প্রতিষ্ঠাকালীন ১৫টি ক্লাব ছাড়া বাকি ৫টি ক্লাব আসবে কোয়ালিফাইং পদ্ধতির মাধ্যমে। প্রতিটি গ্রুপের শীর্ষ তিনটি দল খেলবে কোয়ার্টার ফাইনাল। গ্রুপের চতুর্থ ও পঞ্চম হওয়া দলগুলো মিলে খেলবে দুই লেগের প্লে অফ। সেখান থেকে আসবে শেষ আটের বাকি দল।

 




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top